উলিপুর টু ফকিরের হাট রাস্তার বেহাল দশা, নীরব দর্শকের ভূমিকায় চেয়ারম্যান-মেম্বার


উলিপুর টু ফকিরের হাট রাস্তাটি উলিপুরের অন্যতম ব্যস্ত ও প্রয়োজনীয় রাস্তাগুলোর মধ্যে একটি। রাস্তাটি উলিপুর সদরের সাথে ধামশ্রেণী, রানীগঞ্জ, ব্যাপারীর বাজার, ফকিরের হাট সহ নদীর ওপারের তিনটি ইউনিয়নের যোগাযোগের একমাত্র ভরসা। প্রতিদিন এই রাস্তা দিয়ে চলাচল করে ১০০টির অধিক অটো, ২০০ অটো রিকশা, প্রায় ৩শতাধিক মোটর সাইকেল সহ অসংখ্য যানবাহন।
এমনকি ফকিরেরহাট নদী ঘাটের যাবতীয় মালামাল এই রাস্তা দিয়েই উলিপুরে প্রবেশ করে।

অথচ এত গুরুত্বপূর্ণ রাস্তাটির বেহাল দশা, কিছু কিছু জায়গায় এতটা খারাপ অবস্থা যে যানবাহন চলাচল তো দূর হাটাই যায় না। বিশেষ করে সুড়ির ডারার পার ব্রিজ ও হাজী সাহেবের মসজিদ-মাদ্রাসার অংশটুকু যাতায়তের অযোগ্য হয়ে পড়েছে।
এতটাই বেহাল অবস্থা যে, প্রতিনিয়ত অটো-ট্রাক খাঁদে আটকে যাচ্ছে।

এমতাবস্থায় চলতে থাকলে যেকোন সময় অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটে যেতে পারে। কয়েকবার ছোটখাট দূর্ঘটনাও ঘটেছে।
ছবিতে দেখানো অংশটুকু মসজিদ সংলগ্ন রাস্তার, যা বৃষ্টিতে বারবার ভেঙ্গে যাচ্ছে। স্থানীয় যুবকদের উদ্যোগে দুইবার ঠিক করার চেষ্টা করা হলেও ফল পাওয়া যাচ্ছে না।
প্রতিনিয়ত ভারী পাথরবাহী ট্রাকের যাতায়ত রাস্তার এরকম বেহাল দশার জন্য দায়ী।

ধামশ্রেণী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রাখিবুল হাসান সরদার ও ১নং ওয়ার্ডের ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য সাজ্জাদুর রহমানের দৃষ্টি আকর্ষন করছি। এই এলাকায় সড়ক দূর্ঘটনা এর আগেও ঘটেছে, এর মধ্যে কয়েকটি অত্যন্ত মারাত্মক এমনকি একজনের মৃত্যুও ঘটেছে। আমরা এলাকাবাসী আর কোন অনাকাঙ্খিত ঘটনা দেখতে চাই না।
তাই, দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ জানাচ্ছি।
সেই সাথে নদী ভাঙ্গন রোধে যেসব পাথরবাহী ট্রাক এই রাস্তা দিয়ে চলাচল করে, সেগুলোর জন্য বিকল্প রাস্তা নির্ধারণ করার অনুরোধ জানাচ্ছি, রাস্তাটি ভারী যানবাহন চলাচলের উপযুক্ত নয়।

-মারুফ আহমেদ
সমাজকর্মী ও সম্পাদক,
উলিপুর উপজেলা ডট কম।
ছবি কৃতজ্ঞতাঃ মারজিউল ইসলাম মেহেদী।


আপনার মন্তব্য

comments

Powered by Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *